Thursday, May 30, 2024
বাড়িখবরশীর্ষ সংবাদযুবসমাজকে নেশার কবল থেকে দূরে রাখার উদ্দেশ্যে পুলিশের ১৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে...

যুবসমাজকে নেশার কবল থেকে দূরে রাখার উদ্দেশ্যে পুলিশের ১৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে খোয়াই থানার উদ্যোগে এক ভলিবল প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।

খোয়াই প্রতিনিধি ২৪শে মার্চ…….রাজ্য পুলিশের দেড়শ বছর পূর্তি উপলক্ষে খোয়াই থানার উদ্যোগে রবিবার দুপুরে খোয়াই সরকারি দ্বাদশ শ্রেণি বিদ্যালয়ের মাঠে এক ভলিবল প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়।এইদিন প্রতিযোগিতায় পাঁচটি দল অংশগ্রহণ করে, দল গুলি যথাক্রমে খোয়াই মহকুমা পদ্ম বিল ব্লক, তুলা শিখর,খোয়াই ব্লক ,খোয়াই পুর পরিষদের ও খোয়াই স্থানীয় দল।প্রত্যেকটি দল তিনটি রাউন্ড করে খেলে।এই দিন ভলিবল খেলায় মাঠে উপস্থিত ছিলেন খোয়াই মহকুমা পুলিশ আধিকারিক প্রসুন কান্তি মজুমদার,খোয়াই থানার ওসি সুবীর মালাকার,ইন্সপেক্টর যুগল ত্রিপুরা,খোয়াই সুভাষ পার্ক পুলিশ ফাঁড়ির ওসি রঞ্জিত সরকার স্পোর্টস কাউন্সিলের যুগ্ম সচিব বিষ্ণুপদ চক্রবর্তী সহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।এছাড়া এই দিন খেলা গুলি পরিচালনা করেন রেফারি শান্তনু পাল ও নিতাই কর স্কোরার হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্বজিৎ দেব সরকার।খেলা শুরুতে প্রত্যেকটি দলের খেলোয়াড়দের সাথে করমর্দন করে পরিচিত হন পুলিশ আধিকারিক প্রশন কান্তি মজুমদার সহ অন্যান্যরা।এছাড়া মাঠে উপস্থিত পাঁচটি দলের হাতে খেলার ড্রেস তুলে দেন পুলিশ আধিকারিক।গত কিছুদিন আগে হয়ে যাওয়া বিহার এবং উত্তর প্রদেশে হ্যান্ডবল প্রতিযোগিতায় স্কুল ন্যাশনাল টিম,ও জুনিয়র ন্যাশনাল টিমের ত্রিপুরা রাজ্যের মেয়েরা জয়লাভ করে তার মধ্যে থেকে ছয় জন কে খোয়াই পুলিশের পক্ষ থেকে খেলার পোশাক বিতরণ করা হয়।এই গুলো বিতরণ করেন মহকুমা পুলিশ আধিকারিক প্রসুন কান্তি মজুমদার যে ৬ জন প্লেয়ারদের কে খেলার পোশাক তুলে দেন ওরা হল অন্তরা দত্ত যিনি পরপর তিনবার শ্রেষ্ঠ প্লেয়ারের পুরস্কার পেয়েছেন এই বলি বল খেলায়,এছাড়া বাকিরা হলো করুণা দে,লক্ষ্মী শুক্ল দাস,সঙ্গীতা পাল,মিনু গোয়ালা ও প্রিয়া ঘোষ।খোয়াই থানার উদ্যোগে এই ভলিবল খেলা প্রতিযোগিতার কি উদ্দেশ্য জানতে চাইলে খোয়াই জেলা পুলিশ আধিকারিক প্রসুন কান্তি মজুমদার বলেন ইতিমধ্যে রাজ্য পুলিশের ১৫০ বছর পূর্তি চলছে আর একে সামনে রেখে রাজ্যের প্রত্যেকটি মহকুমা তে রাজ্য পুলিশের উদ্যোগে এই ধরনের ভলিবল প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হচ্ছে তার মধ্যে খোয়াই থানা ও একটি।এই খেলা আয়োজন করার মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে বর্তমান সময়ে যুব সমাজ নেশার করাল গ্রাসে মজে রয়েছে , আর অন্য দিকে পুলিশ বিভিন্ন ভাবে নেশা কারবারীদের একের পর এক গ্রেফতার করে জেলে পাঠাচ্ছে ।যদিও ইদানিং কালে নেশা কারবারিদের বার বাড়ন্ত অনেকটাই নিয়ন্ত্রণ করেছে খোয়াই মহকুমা পুলিশ।তদুপরি পুলিশের পক্ষ থেকে সমস্ত যুব অংশের ছেলে-মেয়েদের কাছে বার্তা দেন যাতে করে নেশার কবল থেকে তারা ফিরে এসে স্বাভাবিক জীবনযাপন করে । অন্যথায় নেশার করাল গ্রাসে ৩০ থেকে ৩৫ বছরের মধ্যে তাদের জীবন ধ্বংস হয়ে যাবে।তাই যুব সমাজের প্রতি বিশেষ করে যুবকদের প্রতি আহ্বান রাখেন পুলিশ আধিকারিক প্রসূন কান্তি মজুমদার। যুবকরা যাতে নেশার কবল থেকে বেরিয়ে ভালো করে লেখাপড়া করে পাশাপাশি বিভিন্নভাবে খেলাধুলার মাধ্যমে শরীর চর্চার দিকে নজর দেন। তাতে করে যেমন শরীর এবং মন ভালো থাকবে তেমনিভাবে অদূর ভবিষ্যতে বিভিন্ন সেনাবাহিনীতে যোগদান দিতে পারবে ।তাই লেখাপড়ার পাশাপাশি শরির চর্চা করার জন্য আবেদন রাখেন মহকুমা পুলিশ আধিকারিক প্রসুন কান্তি মজুমদার।খোয়াই থানার উদ্যোগ এক দিবসীয় ভলিবল প্রতিযোগিতায় এই দিন চ্যাম্পিয়ন হন খোয়াই পুর পরিষদের দল এই দলের হাতে পুরস্কার তুলে দেন স্পোর্টস কাউন্সিলের যুগ্ম সচিব বিষ্ণুপদ চক্রবর্তী,অন্যদিকে রানার হন খোয়াই লোকাল টিম এই টিমের হাতে পুরস্কার তুলে দেন খোয়াই থানার ইন্সপেক্টর যুগল ত্রিপুরা। এখন দেখার বিষয় পুলিশ কর্তাদের এইরকম উদ্যোগকে আজকের যুবসমাজ নেশাকে পেছনে ফেলে শরীর চর্চা ও খেলাধুলা কে গ্রহণ করার ক্ষেত্রে কতটুকু ভূমিকা গ্রহণ করে। যদিও পুলিশ বাবুরা আশাবাদী আগামী দিন যুবসমাজ নেশা সামগ্রীকে বর্জন করে সমাজের মূল স্রোতে নিজেদেরকে ফিরিয়ে আনতে সক্ষম হবে।

RELATED ARTICLES

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

- Advertisment -spot_img

জনপ্রিয় খবর

সাম্প্রতিক মন্তব্য