Tuesday, April 16, 2024
বাড়িখবরশীর্ষ সংবাদগাঁজা পাচারের মূল করিডোরে পরিণত হয়েছে কল্যাণপুর থানা এলাকা! নির্বাচনী নাকা পয়েন্ট...

গাঁজা পাচারের মূল করিডোরে পরিণত হয়েছে কল্যাণপুর থানা এলাকা! নির্বাচনী নাকা পয়েন্ট বসতেই সেই গাঁজা আটক শুরু হয়ে গেছে!

তেলিয়ামুড়া প্রতিনিধি :- সূত্রের খবর, খোয়াই হয়ে কল্যানপুর’কে করিডোর বানিয়ে গাঁজা পাচার হচ্ছিল। সেই সময় কল্যাণপুর আনন্দ মার্গ স্কুল সংলগ্ন এলাকায় নির্বাচনী নাকা পয়েন্টে আটক সেই গাঁজা। TR 01BP0695 নম্বরের একটি ছোট যাত্রীবাহী গাড়িকে ব্যবহার করে ৮ জন পাচারকারী ১৩ কেজি গাঁজা নিয়ে খোয়াই-র দিক থেকে তেলিয়ামুড়ার দিকে আসার পথে কল্যাণপুরে আটক হয় সেই গাড়িটি। কল্যাণপুর থানা সূত্রে জানা যায়, আটককৃত ৮ জনের মধ্যে মধ্যে ২ যুবক বহির রাজ্যের বাসিন্দা।
গোটা ঘটনার বিবরণে জানা যায় বর্তমানে লোকসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে বিভিন্ন জায়গায় নাকা পয়েন্ট বসানো হয়েছে, এরকম ভাবেই একটা নাকা পয়েন্ট রয়েছে কল্যাণপুরের আনন্দমার্গ স্কুলের সামনে। রবিবার পড়ন্ত বিকেলে যখন সংশ্লিষ্ট নাকা পয়েন্টে গাড়িটি আসে (গাড়িটি খোয়াই-এর দিক থেকে তেলিয়ামুড়ার দিকে যাচ্ছিল বলে জানা গেছে) তখন যারা দায়িত্ব পালন করছিলেন তাদের সন্দেহ হলে তল্লাশি এই তল্লা চালানো হয়। এই তল্লাশি চালানোর পরে দেখা যায় অভিনব কায়দায় নিজেদের গায়ে অনেকটা বন্দুকের কার্তুজ যেভাবে রাখা হয় ঠিক সেইভাবে গাজা গুলোকে রেখে তার উপরে শীতের পোশাক জাতীয় কিছু রেখে গাঁজা পাচার করার প্রয়াস চলছিল। গোটা ঘটনা সামনে আসার পর পুলিশ ঘটনার সাথে জড়িত এই ৮ জন সহ গাঁজাগুলি বাজেয়াপ্ত করেছে।
গোটা ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে কল্যাণপুর থানার পুলিশ ইন্সপেক্টর ওসি ইন্সপেক্টর তাপস মালাকার দাবি করেছেন,,,, পুলিশ সর্বদাই দায়িত্ব পালন করছে এবং নাকা পয়েন্টের মাধ্যমে বর্তমান সময়ে আরো বেশি করে নজরদারি চালানো হচ্ছে। এদিনের এই ঘটনা প্রসঙ্গে উনার বক্তব্য হচ্ছে রুটিন চেকআপের অংশ হিসেবেই এদিনের এই গাঁজা আটক করা হয়েছে, তবে আগামী দিনেও এই প্রকারের নজরদারি অব্যাহত থাকবে বলে ওসি তাপস মালাকার দাবি করেছেন।
এভাবে খোয়াই তেলিয়ামুড়া সড়ক ব্যবহার করে বহি: রাজ্যের দুই যুবক সহ রাজ্যের যুবক যুবতীরা সম্মিলিত ভাবে গাঁজা পাচার করতে গিয়ে আটক হওয়ার খবরে ব্যাপক চাঞ্চল্য তৈরি হয়েছে। শেষ সংবাদ পর্যন্ত আটক কৃতদের কল্যাণপুর থানায় রাখা হয়েছে, আগামীকাল তাদের আদালতে সোপার্দ করা হবে। আটকৃত গাজার বাজার মূল্য আনুমান ৭০’০০০ টাকা হবে বলে পুলিশের প্রাথমিক অনুমান। জানা গেছে কল্যানপুর থানার পুলিশ এন.ডি.পি.এস ধারায় মামলা নিয়ে গোটা ঘটনার তদন্ত চালাচ্ছে।।

RELATED ARTICLES

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

- Advertisment -spot_img

জনপ্রিয় খবর

সাম্প্রতিক মন্তব্য