Tuesday, July 23, 2024
বাড়িখবরখেলারামঠাকুর স্কুল মাঠে রাজ্যভিত্তিক খো খো চ্যাম্পিয়নশিপ শুরু

রামঠাকুর স্কুল মাঠে রাজ্যভিত্তিক খো খো চ্যাম্পিয়নশিপ শুরু

স্বাধীনতার ৭৭ বছর এবং ত্রিপুরার পূর্ণ রাজ্য মর্যাদা প্রাপ্তির ৫৯ বছরের মধ্যে এই প্রথম খেলাধুলা রাজ্যকে পৃথক একটা পরিচিতি প্রদান করেছে ।শনিবার রাজধানীর রামঠাকুর বয়েজ স্কুল মাঠে রাজ্যভিত্তিক খো খো টুর্নামেন্টের উদ্বোধন করে এই কথা বলেন ক্রীড়া ও যুব কল্যাণ মন্ত্রী টিঙ্কু রায়। উদীয়মান সংঘের উদ্যোগে আয়োজিত এই রাজ্যভিত্তিক খো খো টুর্নামেন্টের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট সমাজসেবী তথা প্রদেশ বিজেপি সভাপতি রাজীব ভট্টাচার্য সহ অন্যান্যরা।রাজধানীর টাউন প্রতাপগডস্হিত উদীয়মান সংকের উদ্যোগে রামঠাকুর বয়েজ স্কুল মাঠে শনিবার থেকে ৩৪ তম পুরুষ ও মহিলা এবং ২৯ তম সাব জুনিয়র বালক ও বালিকাদের রাজ্যভিত্তিক খোখো চ্যাম্পিয়নশিপের আসর শুরু হয়েছে ।শনিবার বিকেলে এই রাজ্যভিত্তিক আসরের উদ্বোধন করেন রাজ্যের ক্রীড়া ও যুব কল্যাণ দপ্তরের মন্ত্রী টিংকু রায় ।উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট সমাজসেবী তথা প্রদেশ বিজেপি সভাপতি রাজীব ভট্টাচার্য ।এছাড়া উপস্থিত ছিলেন রাজ্য ক্রীড়া পর্ষদ সচিব সুকান্ত ঘোষ, সংস্থার সভাপতি তথা এমডিসি বিদ্যুৎ দেববর্মা,ত্রিপুরা অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান রতন সাহা, স্থানীয় কর্পোরেটর অঞ্জনা দাস সহ অন্যান্যরা ।রাজ্যভিত্তিক খো খো চ্যাম্পিয়নশিপের উদ্বোধন করে ক্রীড়া ও যুব কল্যাণ দপ্তরের মন্ত্রী টিংকু রায় বলেন, খোখো একটি গ্রামীণ খেলা ।এই গ্রামীণ খেলাকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য পিআইদের নিষ্ঠার সাথে খেলার মানসিকতা নিয়ে প্রশিক্ষণ প্রদানের জন্য আহ্বান জানান তিনি ।মন্ত্রী জানান, স্বাধীনতার ৭৭ বছর পর ত্রিপুরার পূর্ণ রাজ্যের মর্যাদা প্রাপ্তির ৫০ বছরের মধ্যে এই প্রথম রাজ্যে খেলাধুলায় বিরাট পরিবর্তন এসেছে ।এটা সম্ভব হয়েছে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী প্রফেসর ডাক্তার মানিক সাহার নেতৃত্বাধীন এই সরকারের জন্যই ।এই সময়ে রাজ্যের অনেক ছেলেমেয়েরাই সর্ব ভারতীয় স্তরে অনেক টুর্নামেন্টে নিজেদের প্রতিভার স্বাক্ষর রেখে মেডেল ছিনিয়ে এনেছে। মন্ত্রী বলেন ,দীপা কর্মকার, সোমদেব দেব বর্মন ,অর্সিয়া দাস, আরাধ্যা ও প্রতিষ্ঠা সামন্তরা রাজ্যকে একটি বিশেষ পরিচিতি প্রদান করেছে ।এর জন্য আমাদের গর্ববোধ হয় বলেও জানান ক্রিয়া ও যুব কল্যাণ মন্ত্রী টিঙ্কু রায়। মন্ত্রী জানান ,রাজ্যে অনেকগুলো ভালো মানের খেলার মাঠ তৈরি হয়েছে। খেলাধুলার পরিকাঠামো বৃদ্ধি করা হয়েছে ।শীঘ্রই পিয়াই পদে নিয়োগ করা হবে ।প্রতিটি কোচিং সেন্টারে পিআই নিয়োগ করা হবে। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে কথাবার্তা চলছে বলেও জানান তিনি।অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন বিশিষ্ট সমাজসেবী তথা রাজ্য বিজেপি সভাপতি রাজীব ভট্টাচার্য ।রাজ্যভিত্তিক এই আসরে সিনিয়র বিভাগে পুরুষ ও মহিলাদের ১৬ টি দল এবং সাব জুনিয়র বালক ও বালিকা বিভাগে ১০ টি দল অংশগ্রহণ করেছে ।দিবারাত্রির এই রাজ্যভিত্তিক প্রতিযোগিতা রবিবার সন্ধ্যারাতে সমাপ্ত হবে।

RELATED ARTICLES

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

nine − 7 =

- Advertisment -spot_img

জনপ্রিয় খবর

সাম্প্রতিক মন্তব্য