Sunday, June 23, 2024
বাড়িশ্রেণী বহির্ভূতখোয়াইতে পালিত হল স্বামী বিবেকানন্দের ১৬২ তম জন্মজয়ন্তী দিবস সরকারি ও বেসরকারি...

খোয়াইতে পালিত হল স্বামী বিবেকানন্দের ১৬২ তম জন্মজয়ন্তী দিবস সরকারি ও বেসরকারি ভাবে।

বাসুদেব ভট্টাচার্য খোয়াই ১২ই জানুয়ারি……”জীবে প্রেম করে যেই জন সেই জন সেবিছে ঈশ্বর” নিজের এই উক্তিটি কে পাথেয় করে সমাজ থেকে ধর্মের কুসংস্কার কে দূর করতে এবং যুবসমাজকে দেশের জন্য অগ্রণী ভূমিকা নিয়ে কাজ করার জন্য ডাক দিয়েছিলেন ভারতবর্ষের এক ধর্ম প্রচারক তথা দার্শনিক স্বামী বিবেকানন্দ।তাইতো শুক্রবার উনারই ১৬২ তম জন্ম দিবস কে সামনে রেখে খোয়াই তথ্য ও সংস্কৃতি দপ্তর এবং খোয়াই পুর পরিষদের উদ্যোগে ও শ্রী শ্রী রামকৃষ্ণ সেবাআশ্রম ও খোয়াই কালচারাল সেলের যৌথ সহযোগিতায় খোয়াই পুরাতন টাউন হলে শুক্রবার দুপুরে অনুষ্ঠিত হলো স্বামী বিবেকানন্দের ১৬২ তম জন্মতিথী উপলক্ষে জাতীয় যুব দিবস উদযাপন ও যুব মানুষের বিবেকানন্দ এই বিষয়ের উপর এক সেমিনারের আয়োজন করা হয়।সেমিনারে উপস্থিত ছিলেন অনুষ্ঠানের উদ্বোধক আগরতলা রামকৃষ্ণ মিশনের সম্পাদক শ্রীমৎ স্বামী অমর্তা নন্দজী মহারাজ , এছাড়া অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন খোয়াই জিলা পরিষদের সদস্য সুব্রত মজুমদার,খোয়াই পুরো পরিষদের চেয়ারম্যান দেবাশীষ নাথ শর্মা,খোয়াই রামকৃষ্ণ আশ্রমের সম্পাদক মানিক দেবনাথ, তথ্য আধিকারিক বিশ্বজিৎ বণিক,ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক বিষয়ক কমিটির সভাপতি পীযূষ কান্তি চৌধুরী সহ বিভিন্ন স্কুল থেকে আগত ছাত্র-ছাত্রীরা। শেষে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে খোয়াই জিলা পরিষদের সদস্য সুব্রত মজুমদার প্রথমেই বলেন স্বামী বিবেকানন্দের জীবনী নিয়ে আলোচনা করা একটা বড় ধৃষ্টতা বলে মনে করেন কারণ তিনি এত অগাধ জ্ঞানের অধিকারী ছিলেন যা ভেবে কুলকিনারা পাওয়া যায় না। সেই জ্ঞানের কারণেই স্বামীজি আমেরিকার চিকাগো শহরে ভারতের সনাতন ধর্মকে যেভাবে প্রচার করেছিলেন তার জন্য সারা বিশ্ব উনার কাছে চির কৃতজ্ঞ থাকিবেন পাশাপাশি ভারতবর্ষে সনাতন ধর্মকে বিশ্বের দরবারে নিয়ে গিয়ে ভারতবর্ষের মান তৎকালীন সময়ে উচ্চ স্থানে বসেছিলেন তা কল্পনাও করা যায় না। তৎকালীন সময় ইংরেজদের বিরুদ্ধে তিনি লড়েছিলেন ভারত মাতার প্রতি দায়বদ্ধ নিয়ে ভারতের স্বাধীনতা সংগ্রামী অগ্রণী ভূমিকা নেওয়ার জন্য যুব সমাজকে যেভাবে উৎসাহিত করেছিলেন আজ পর্যন্ত তা কেউ করতে পারেনি ।তাইতো ওনার জন্ম তিথির দিনটিকে ভারতবাসী জাতীয় যুব দিবস হিসেবে পালন করে আসছে।তাইতো স্বামীজি বলেছিলেন জীবে প্রেম করে যেই জন সেই জন সেবিছে ঈশ্বর অর্থাৎ ঈশ্বরকে পূজা না করে বা সেবা না করে জীব রুপি সব ধরনের মানুষদেরকে সেবা করলেই প্রকৃত ঈশ্বরের লাভ পাওয়া যায় ।আর ওনার এই বাণীকে পথেয় করেই স্বামী বিবেকানন্দ দেশ ও দেশমাতৃকার সেবায় নিজেকে বিলিয়ে দিয়েছিলেন যার ব্যাখ্যা করাও খুব কঠিন সাধ্য ব্যাপার বলে মনে করেন জিলা পরিষদের সদস্য সুব্রত মজুমদার। তিনি এও বলেন উনার কর্মজীবন সম্বন্ধে বলতে গেলে জানতে গেলে উনার সারা জীবনের কর্মকাণ্ডের বিষয়ে পুঙ্খানু পুঙ্খ রূপে জ্ঞান অর্জন করেই বলা উচিত অন্যথায় উনার মতন ব্যক্তির জীবনী নিয়ে আলোচনা করাই একটা মূর্খতা উনি ওনার জীবদ্দশায় যা যা করেছেন তা বলে শেষ করা যাবে না এক কথায় তিনি ভারতবর্ষের যুবকদের জন্য একটি আইকন ।এরপর একে একে অনুষ্ঠানের সবাই বিবেকানন্দের জীবনের উপর আলোচনা করেন ।এবং বিভিন্ন স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীদের নিয়ে এক সেমিনার আয়োজন করা হয়। স্বামী বিবেকানন্দের জন্ম জয়ন্তী উপলক্ষে খোয়াই এর বিভিন্ন এলাকাতে বিভিন্ন রকম অনুষ্ঠান পালন করা হয়। এছাড়া খোয়াই জেলা কংগ্রেসের পক্ষ থেকে খোয়াই কোহিনুর কমপ্লেক্স প্রাঙ্গণে শুক্রবার বিকালে স্বামী বিবেকানন্দের ১৬২ তম জন্মদিন উপলক্ষে এক সভার আয়োজন করা হয়। সব মিলিয়ে শুক্রবার দিনটি ১৬২ তম স্বামীজীর জন্ম জয়ন্তী উপলক্ষে খোয়াইে বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি সংস্থাগুলি উনার জন্মতিথি পালন করেন বিভিন্ন সামাজিক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে এই দিন খোয়াই শহরটি ছিল জমজমাট ।

RELATED ARTICLES

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

- Advertisment -spot_img

জনপ্রিয় খবর

সাম্প্রতিক মন্তব্য