Sunday, June 23, 2024
বাড়িখবরশীর্ষ সংবাদপথ দুর্ঘটনায় আহত রোগীদের অগ্নি নির্বাপক দপ্তরের লোকেরা খোয়াই চেবরি প্রাথমিক হাসপাতালে...

পথ দুর্ঘটনায় আহত রোগীদের অগ্নি নির্বাপক দপ্তরের লোকেরা খোয়াই চেবরি প্রাথমিক হাসপাতালে নিয়ে গেলে তাদের চিকিৎসা করতে অনিহা প্রকাশ করে সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসকরা বলে অভিযোগ!!!!!!!!

খোয়াই প্রতিনিধি ১৮ই ডিসেম্বর……রবিবার রাত ১০ টা নাগাদ খোয়াই চেবরী থেকে শান্তিনগর যাওয়ার সেই তেমনি স্থিত শনি মন্দির সংলগ্ন এলাকাতে টমটম ও বাইকের মুখোমুখি সংঘর্ষের ফলে গুরুতরভাবে আহত হয় চার জন টমটম চালকসহ। এই ঘটনার পর সংশ্লিষ্ট এলাকার জনগণ সাথে সাথে খোয়াই অগ্নি নির্বাপক দপ্তরে খবর পাঠালে দুর্ঘটনা গ্রস্থ চারজনকে উদ্ধার করে দুর্ঘটনার নিকটস্থ খোয়াই চেবরী স্থিত প্রাথমিক হাসপাতালে নিয়ে যায় অগ্নি নির্বাপক দপ্তরের কর্মীরা। এখানে সবথেকে উদ্ভিগ্নের বিষয় উক্ত চেবরী প্রাথমিক হাসপাতালে আহত রোগীদের নিয়ে যাওয়ার পর প্রাথমিক হাসপাতালের স্বাস্থ্য কর্মীরা দুর্ঘটনা গ্রস্ত রোগীদের এই প্রাথমিক হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদানে অনীহা প্রকাশ করেন উপরন্তু উক্ত প্রাথমিক হাসপাতালের চিকিৎসক সহ স্বাস্থ্য কর্মীরা অগ্নি নির্বাপক দপ্তরের কর্মীদের উপদেশ দেন তারা যাতে দুর্ঘটনা গ্রস্থ রোগীদের খোয়াই জেলা হাসপাতালে নিয়ে যায়, শেষে রোগীদের কথা চিন্তা করে যথারীতি অগ্নি নির্বাপক দপ্তরের কর্মীরা কিংকর্তব্যবিমূঢ় হয়ে দুর্ঘটনা গ্রস্ত রোগীদের খোয়াই জেলা হাসপাতালে নিয়ে আসেন। এই ঘটনা গুলি অগ্নি নির্বাপক দপ্তরের উদ্ধারকারী কর্মীরা সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে এই ঘটনাটি জানান ।এখন প্রশ্ন হল একপক্ষ কাল আগে খোয়াই চেবরী প্রাথমিক হাসপাতালে নতুন বিল্ডিং এর উদ্বোধন করতে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী তথা স্বাস্থ্য দপ্তরে মন্ত্রী ডক্টর মানিক সাহা চেবরী প্রাথমিক হাসপাতালের স্বাস্থ্যকর্মীদের উপদেশ দিয়ে যান রোগীদের সাথে ভালো ব্যবহার করলে রোগীরা তার উপসর্গ অনেকটাই ভালো হয়ে যায় তাই তিনি বলেন ৫০ শতাংশ ভালো ব্যবহার এবং ৫০ শতাংশ চিকিৎসা প্রদান করলে রোগীরা সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে যাবে। এক পক্ষ কাল যেতে না যেতেই দুর্ঘটনা গ্রস্ত রোগীদের চিকিৎসা প্রদানে অনীহা প্রকাশ কড়ার ঘটনাকে দুঃখজনক বলে খোয়াই এর আপামোর জনগণ মন্তব্য করেন এবং এই বিষয় নিয়ে অনেকটাই উদ্বিগ্ন খোয়াই বাসি। দুর্ঘটনা গ্রস্থ রোগীরা হলো কমলা দাস বয়স ৩০, মুক্তারানী দাস বয়স ৫০, উৎপল পাল বয়স ২৪, টমটম চালক দিলীপ মনি দাস বয়স ৩০। তারা একটি টমটম দিয়ে খোয়াই থেকে রামচন্দ্র ঘাট হরিনাম সংকীর্তনে যাচ্ছিল এবং সংশ্লিষ্ট এলাকায় দুর্ঘটনার কবলে পড়েন যদিও বাইক চালক পলাতক। তার মধ্যে তিনজনকে খোয়াই জেলা হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক প্রাথমিক চিকিৎসার করার পর গুরুতর আহত হওয়ায় জিবি হাসপাতালে পাঠান। তারা হলেন কমলা দাস, মুক্তারানী দাস ও দিলীপ মনি দাস কে। খোয়াই এর অধিকাংশ সড়ক দুর্ঘটনার মূল কারণ হলো বেপরোয়া ভাবে যানবাহন চালোনার জন্য এর মধ্যে একাংশ দ্বিচক্রযানের ঊর্ধ্ব গতিতে বাইক চালানোর জন্যই এই দুর্ঘটনাগুলি ঘটছে বলে খোয়াইয়ের শুভ বুদ্ধি সম্পন্ন মহলের দাবি। খোয়াইয়ের আপামর জনগণ দাবি তুলছেন খোয়াই পুলিশ প্রশাসন ও খোয়াই ট্রাফিক ইউনিট শুধুমাত্র হেলমেট এবং বাইকের কাগজপত্র চেকিং এর মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকলে হবে না বেপরোয়া ভাবে যানবাহন চালনার জন্য সক্রিয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা একান্ত প্রয়োজন। অন্যথায় সড়ক দুর্ঘটনা এড়ানো অথবা লাগাম টানা কিছুতেই সম্ভব না। আর এই সমস্ত বেপরোয়া যানবাহনের জন্য সাধারণ জনগণ সময় অসময়ে দুর্ঘটনার কবলে পড়ে অনেক কে প্রাণ দিতে হচ্ছে। সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় রবিবার রাতে খোয়াই চেবরী প্রাথমিক হাসপাতালে ঘটে যাওয়া দুর্ঘটনা গ্রস্থ রোগীদের সঙ্গে যে ব্যবহারটা করেছেন সেখানকার চিকিৎসকরা সেই বিষয়টা খুবই লজ্জাজনক। এবং খুবই আক্ষেপের সঙ্গে অগ্নি নির্বাপক দপ্তরের কর্মীরা জানান তাদের দপ্তরের নিয়ম অনুযায়ী দুর্ঘটনা এলাকা থেকে কাছাকাছি যে হাসপাতাল বা প্রাথমিক হাসপাতাল থাকবে সেখানেই দুর্ঘটনা গ্রস্ত রোগীদের নিয়ে যাওয়া এবং তাদের চিকিৎসা পরিষেবা দেওয়া। আসলে একাংশ স্বাস্থ্যকর্মী সরকারি নির্দেশিতাকে বৃদ্ধাঙ্গুল দেখিয়ে সরকারি কর্মসংস্কৃতিকে নষ্ট করার জন্য সিদ্ধ হস্ত শুধু তাই না খোয়াই উত্তর চেবরি স্থিত সেই প্রাথমিক হাসপাতালে আগেও এই ধরনের কর্মকান্ডের জন্য দুর্নাম হয়ে রয়েছে এরপরও তারা শোধরায়নি কথায় বলে কুকুরের নেজ বাঁকাই থাকে।

RELATED ARTICLES

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

- Advertisment -spot_img

জনপ্রিয় খবর

সাম্প্রতিক মন্তব্য