Thursday, May 30, 2024
বাড়িখবরশীর্ষ সংবাদনিষিদ্ধ জঙ্গিগোষ্ঠী এন এল এফটি দলের কমান্ডার উৎপল দেববর্মা কে সিমনা এলাকা...

নিষিদ্ধ জঙ্গিগোষ্ঠী এন এল এফটি দলের কমান্ডার উৎপল দেববর্মা কে সিমনা এলাকা থেকে গ্রেফতার করে চাম্পা হাওয়ার থানার পুলিশ

খোয়াই প্রতিনিধি ১৬ই ডিসেম্বর……..আশির দশক থেকে শুরু হয়েছিল রাজ্যের বিভিন্ন পাহাড়ি জনপদ এলাকা গুলিতে এন এল এফটি ও এ টি টি এফ এর মতো জঙ্গিগোষ্ঠীর তৎপরতা বাড়তে বাড়তে ৯০ দশকের মাঝামাঝিতে ব্যাপক ভাবে বেড়ে গিয়েছিল। তাতে করে রাজ্যের স্বাভাবিক জীবনযাত্রার মান থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছিল বৃহৎ অংশের জনগণ। শেষে কালের বিবর্তনে রাজ্যের জঙ্গিপনা কার্যকলাপের লাগাম টানতে পুলিশ প্রশাসনের সক্রিয় ভূমিকা গ্রহণ করার কারনে রাজ্যের পরিস্থিতি ও জনগণের মধ্যে স্বাভাবিক বাতাবরণ ফিরে আসে এবং অনেক ক্ষেত্রে উগ্রবাদীরা আত্মসমর্পণ করে স্বাভাবিক জীবনযাত্রায় ফিরে আসে। তারপরও কিছু কিছু বিক্ষিপ্ত ঘটনার সঙ্গে জড়িয়ে যায় তৎকালীন জঙ্গি গোষ্ঠীর সঙ্গে ওত প্রুত ভাবে কিছু জঙ্গিরা। তেমনই ভাবে খোয়াই চাম্পা হাওর থানাধীন এন এল এফ টি জঙ্গি গুষ্টির কট্টর জঙ্গি উৎপল দেববর্মাকে গোপন খবরের ভিত্তিতে শুক্রবার ভোরে সিমনা এলাকা থেকে খোয়াই চাম্পা হাওর থানার পুলিশ গ্রেফতার করেন। ঘটনার বিবরণে চাম্পা হাওর থানার পুলিশ জানায় যে ধৃত ওই প্রাক্তন জঙ্গি উৎপল দেববর্মা নামে ২০২০/২১ এর দুইটি মামলায় গ্রেফতারি পরোয়ানা ছিল সেই মামলাগুলি হল পি আর সি ধারায় ১৯৬/২০২১ও কেইস নং ৩০/২০২০। গ্রেপ্তার করার পর পুলিশ আসামি উৎপল দেববর্মা কে আদালতে পাঠান। একটা সময় ছিল খোয়াই চাম্পা হাওর থানা ধিন সমস্ত পাহাড়ি এলাকাগুলি এন এল এফ টি, টাইগার গোষ্ঠী বি এন সি টির মত জঙ্গি দলের আঁতুঘর ছিল। সাধারণ জনজীবন জঙ্গিপনার কারণে অনেকে ব্যাহত হয়েছে তৎকালীন সময়ে এর লাগাম টানতে খোয়াইয়ের বেশ কিছু প্রত্যন্ত এলাকাতে পুলিশ প্রশাসনের সক্রিয়তা অনেকটাই লক্ষণীয় ছিল। যদিও এখন আর সেই রকম জঙ্গিপনার কার্যকলাপ পরিলক্ষিত হয় না এর পরও তৎকালীন সময়ে জঙ্গি গুষ্টির সাথে যুক্ত জঙ্গিরা সাধু সেজে থেকেও মাঝেমধ্যে উঁকি ঝুঁকি দেবার চেষ্টা করে কিন্তু পুলিশ প্রশাসন সক্রিয় থাকার সুবাদে সেইরকম ভাবে মাথাচারা দেবার সুযোগ পায় না বললেই চলে। তবুও উৎপল দেববর্মার মত জঙ্গি দলের সক্রিয় তৎকালীন সদস্যরা নিজেদের কৃতকর্মের লাগাম সেই রকম ভাবে টানতে পারছে না। বেশ কিছুদিন আগে খোয়াই চাম্পাহার থানা ধিন তুলা শিখর এলাকাতে জঙ্গি গোষ্ঠী দলের এক সদস্য স্থানীয় একটি ঠিকাদারকে হুমকি ধমকি দিয়েছিল টাকা দেওয়ার জন্য যদিও চাম্পা হাওর থানার পুলিশ প্রশাসনের সক্রিয় প্রচেষ্টায় ওই ঠিকাদার সুন্দরভাবে কাজ সমাপ্ত করতে পেরেছিল। সব মিলিয়ে চাম্পা হওয়ার থানার কাজকর্মে থানা এলাকার শুভবুদ্ধি সম্পুর্ন জনগণের প্রশংসা অনেকটাই কুড়িয়ে নিয়েছেন বলে চম্পার থানার এলাকাবাসীর বক্তব্য।

RELATED ARTICLES

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

- Advertisment -spot_img

জনপ্রিয় খবর

সাম্প্রতিক মন্তব্য