Sunday, April 21, 2024
বাড়িখবরশীর্ষ সংবাদস্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার বিরুদ্ধে চাঞ্চল্যকর অভিযোগ। অভিযোগটি উঠেছে স্টেট ব্যাঙ্ক অফ...

স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার বিরুদ্ধে চাঞ্চল্যকর অভিযোগ। অভিযোগটি উঠেছে স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার তেলিয়ামুড়া শাখার বিরুদ্ধে।

তেলিয়ামুড়া প্রতিনিধি :-
ঘটনার বিবরণে জানা যায়, তেলিয়ামুড়া মহকুমার বাসিন্দা জনৈকা বিনা দাস নামের এক মহিলার স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার তেলিয়ামুড়া শাখায় থাকা উনার ব্যাংক একাউন্টে সরকারি ঘরের ৪৮ হাজার টাকা প্রথম কিস্তিতে ঢুকেছিল, এছাড়াও উনার একাউন্টে আগে থেকেই কিছু টাকা ছিল। তবে চলতি মাসের ৮ তারিখ সংশ্লিষ্ট মহিলা যখন ব্যাংকে আসেন তখন তিনি জানতে পারেন কোন ভাবে ওনার ওই টাকা আগেই টাকা উঠানো হয়েছে ব্যাংক থেকে। ব্যাংক থেকে খোজ নিয়ে জানতে পারেন উনার অজান্তেই কেউ ব্যাংক থেকে উইথড্রল ফ্রম ব্যবহার করে উনার টাকা তুলে নিয়েছে। সংশ্লিষ্ট বিষয় নিয়ে একাধিকবার স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার তেলিয়ামুড়া শাখার কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা হলেও ব্যাংকের কর্মীরা কোনভাবেই ওই মহিলাকে ইতিবাচক সহযোগিতা করছে না বলে অভিযোগ। এরই মধ্যে আজ অর্থাৎ শনিবার সংশ্লিষ্ট মহিলা ওনার এক নিকটাত্মীয় সহ স্থানীয় গ্রাম পঞ্চায়েতের গ্রাম প্রধানকে নিয়ে তেলিয়ামুড়ার স্টেট ব্যাংক শাখায় পুনরায় আসেন এবং ব্যাংক কর্তৃপক্ষের কাছে ঘটনার সঠিক তদন্ত করে উনার টাকা উনাকে ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য দাবি জানান। সেই সঙ্গে ওই মহিলার তরফ থেকে ব্যাংক কর্তৃপক্ষকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে আগামী কিছুদিনের মধ্যে উনার এই সমস্যার সমাধান না হলে পরবর্তী আইনি পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন তিনি। কিন্তু প্রতারিত মহিলার এক নিকট আত্মীয় অভিযোগ করে বলেন,,, ব্যাংক কর্তৃপক্ষ নাকি তাদেরকে বলেছে ব্যাংকে লাগানো সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজ ৩ মাসের বেশি সময় সেই সিসিটিভি ফুটেজ তারা রাখেন না। তবে প্রশ্ন দেশের এত বড় একটি ব্যাংকের শাখার নিরাপত্তার জন্য ব্যাংকে লাগানো সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজ যদি তিন মাসের বেশি সময় না রাখা হয়, সেই ক্ষেত্রে ব্যাংকে ঘটে যাওয়া যে কোনো প্রকারের অপ্রীতিকর ঘটনার তদন্ত কিভাবে সম্ভব হবে..?
সংশ্লিষ্ট বিষয়ের প্রতারিত মহিলার নিকট আত্মীয় জনৈক অজয় দাস সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে দাবি করেছেন,,,, ব্যাংক থেকে এভাবে উইন্ড্রল ফ্রম ব্যবহার করে আরেকজনের টাকা তুলে নেওয়ার মধ্য দিয়ে অনুমান করা যাচ্ছে এর সাথে ব্যাংকের কর্মীরা জড়িত রয়েছেন। উনার প্রশ্ন হচ্ছে যেহেতু ব্যাংকে টাকা তুলতে গেলে সিগনেচার ভেরিফাই হয় সে ক্ষেত্রে যদি ব্যাংকের কোন কর্মী যুক্ত না থাকেন তাহলে এরকম করা সম্ভব না। পাশাপাশি তিনি স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন ব্যাংক কর্তৃপক্ষ উনার কাছে সাত দিনের সময় চেয়েছেন এবং এই সময়ের মধ্যেই এই বিষয়ে কিছু একটা করা হবে বলে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে। যদি সংশ্লিষ্ট বিষয়ে আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করা না হয় তাহলে প্রতারিত মহিলা এবং উনার পরিবারের তরফ থেকে স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার তেলিয়ামুড়া শাখার বিরুদ্ধে থানায় এফ.আই.আর করে আইনের দ্বারস্থ হবে বলেও স্পষ্টভাবে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। সেই সঙ্গে, এই ঘটনা চাউর হতেই তেলিয়ামুড়া মহকুমার সচেতন মহল মনে করছে যে, স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার তেলিয়ামুড়া শাখায় ঘটে যাওয়া এই ধরনের ঘটনা এই ব্যাংক গ্রাহকদের নিরাপত্তাহীনতার চিন্তায় ফেলে দিতে পারে।

RELATED ARTICLES

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

- Advertisment -spot_img

জনপ্রিয় খবর

সাম্প্রতিক মন্তব্য