Tuesday, April 16, 2024
বাড়িশ্রেণী বহির্ভূতবিধ্বংসী অগ্নিকাণ্ডে তেলিয়ামুড়ার একাংশ ব্যবসায়ীরা সর্বস্বান্ত হয়ে গেছে, এক লহমায় সদা প্রাণ...

বিধ্বংসী অগ্নিকাণ্ডে তেলিয়ামুড়ার একাংশ ব্যবসায়ীরা সর্বস্বান্ত হয়ে গেছে, এক লহমায় সদা প্রাণ চঞ্চল তেলিয়ামুড়াতে যেন অস্থিরতা।

তেলিয়ামুড়া প্রতিনিধি :-রবিবার বিকাল আনুমানিক তিনটার কিছু পরে তেলিয়ামুড়ার উত্তর বাজারে সত্যনারায়ণ স্টোরস থেকে আগুনের সূত্রপাত হয় বলে জানা গেছে। হঠাৎ করে দু একজনের নজরে বিষয়টা আসতেই শুরু হয় দৌড়ঝাপ, তড়িঘড়ি খবর দেওয়া হয় তেলিয়ামুড়ার অগ্নি নির্বাপক দপ্তরে। খবর পেয়ে মুহূর্তের মধ্যেই তেলিয়ামুড়ার দুটা ইঞ্জিন আগুন নিয়ন্ত্রণে ঝাঁপিয়ে পড়ে, কিন্তু মুহূর্তের মধ্যেই আগুনের তীব্রতা এতটাই বৃদ্ধি পেতে থাকে যে কিছুক্ষণের মধ্যেই কল্যাণপুর, খোয়াই, অম্পি, আমবাসা এমনকি জিরানিয়া থেকেও অগ্নি নির্বাপক দপ্তরের ইঞ্জিনকে ছুটে আসতে হয়। দীর্ঘ প্রায় তিন থেকে সাড়ে তিন ঘন্টার প্রচেষ্টায় আগুন কিছুটা নিয়ন্ত্রণে আসে। ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ সম্পর্কে নির্দিষ্ট করে কিছু বুঝে ওঠার বা বলার মত অবস্থা আপাতত প্রতিবেদন পাঠানো পর্যন্ত তেলিয়ামুড়া বাজারে নেই। এদিকে আগুন নিয়ন্ত্রণ করার জন্য তেলিয়ামুড়ার মহকুমা প্রশাসনের অন্তর্গত দুর্যোগ মোকাবেলা দপ্তর স্কাউট গাইডস থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষ এবং এমনকি বিভিন্ন জায়গাতে অগ্নি নির্বাপক দপ্তরের কর্মরত যারা তেলিয়ামুড়াতে ছুটিতে এসেছেন, তারাও নিজেদের জীবন বাজি রেখে প্রশংসনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন। এদিকে যতটুকু প্রাথমিকভাবে জানা গেছে সত্যনারায়ণ স্টোরস এ মজুদ থাকা প্রচুর পরিমাণে শব্দবাজির বিস্ফোরণের ফলে আগুন দ্রুততার সাথে বিস্তার লাভ করে। বিগত কিছুদিন আগে প্রশাসনের তরফ থেকে বাজারে নজরদারি অভিযান চালানোর সময়ে প্রশাসনিক কর্তাদের নজরেও বিষয়টা এসেছিল বলে জানা গেছে এবং সত্যনারায়ণ স্টোরস এর যিনি কর্ণধার তিনি নিজের দোকানে এভাবে শব্দবাজি মজুদ রাখবেন না বলে প্রতিশ্রুতিও দিয়েছিলেন। কিন্তু আজ দিকে দিকে একটাই আলোচনা এবং পর্যালোচনা চলছে একমাত্র সত্যনারায়ণ স্টোরস এর মধ্যে এভাবে আইনবিরুদ্ধ বা অবৈধভাবে প্রচুর পরিমাণে শব্দবাজি ও সচেতন ভাবে অধিক মুনাফার জন্য মজুদ করে রাখা এই অগ্নিকাণ্ডে সর্বশান্ত হতে হয়েছে সত্যনারায়ণ স্টোরস সহ অন্যান্য একাধিক প্রতিষ্ঠানকে। এদিকে অগ্নিকান্তের খবর পেয়ে মুহূর্তের মধ্যে এই ঘটনাস্থলে হাজির হন স্থানীয় বিধায়িকা তথা মুখ্য সচেতক কল্যাণী সাহা রায়, প্রাথমিকভাবে শ্রীমতি সাহারায় গোটা ঘটনায় গভীর দুঃখ প্রকাশ করেছেন এবং পরবর্তী সময়ে উপযুক্ত তদন্ত করে ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে দাঁড়ানোর ব্যাপারে আশ্বাস প্রদানও করেছেন।।

RELATED ARTICLES

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

- Advertisment -spot_img

জনপ্রিয় খবর

সাম্প্রতিক মন্তব্য