Thursday, May 30, 2024
বাড়িখবরশীর্ষ সংবাদগ্রামীণ অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে বিকাশ ভারত সংকল্প যাত্রার অন্তর্গত খোয়াই ব্লকের উদ্যোগ...

গ্রামীণ অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে বিকাশ ভারত সংকল্প যাত্রার অন্তর্গত খোয়াই ব্লকের উদ্যোগ অনুষ্ঠিত হলো সুশাসন মেলা।

খোয়াই প্রতিনিধি ১৪ই ডিসেম্বর…… কেন্দ্রীয় সরকারের উদ্যোগে গত কিছুদিন ধরে রাজ্যের বিভিন্ন ব্লকের অন্তর্গত গ্রামীণ এলাকা গুলিকে অর্থনৈতিক ভাবে চাঙ্গা করার স্বার্থে চলছে ব্লক ভিত্তিক সুশাসন মেলা। এরই এই অঙ্গ হিসাবে বৃহস্পতিবার দুপুর থেকে খোয়াই আর ডি ব্লকের উদ্যোগে ব্লক অফিস প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল বিকাশ ভারত সংকল্প যাত্রার অন্তর্গত প্রতি ঘরে সুশাসন মেলার ব্লক ভিত্তিক এক প্রশাসনিক ক্যাম্প।এইদিন অনুষ্ঠানের প্রদীপ প্রজ্বলন করে অনুষ্ঠানের শুভ আরম্ভ করেন খোয়াই জিলা পরিষদের সভাধিপতি জয়দেব দেববর্মা,এছাড়া এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন জিলা পরিষদের সদস্য সুব্রত মজুমদার,পঞ্চায়েত সমিতির চেয়ারম্যান শ্রীমতি টিংকু চক্রবর্তী,ভাইস চেয়ারম্যান তাপস কান্তি দাস আর ডি ব্লকের আধিকারিক অভিজিৎ দাস সহ অন্যান্যরা।অনুষ্ঠানের বক্তব্য রাখতে গিয়ে প্রত্যেক বক্তাই এই সুশাসন মেলার কার্যকারিতা নিয়ে আলোচনা করেন।শেষে বক্তব্য রাখতে গিয়ে পঞ্চায়েত সমিতির ভাইস চেয়ারম্যান তাপস কান্তি দাস ব্লক ভিত্তিক প্রশাসনিক মেলার অন্তর্নিহিত বিভিন্ন কাজকর্মের বিষয়ে আলোচনা করেন এবং বলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর উদ্যোগে সুশাসন মেলার দ্বিতীয় পর্যায়ের কাজ চলছে।তাতে করে খোয়াই আর ডি ব্লকের উদ্যোগে ব্লকের বিভিন্ন গ্রাম পঞ্চায়েতের জনগণের স্বার্থে এই মেলা এবং প্রশাসনিক ক্যাম্পের আয়োজন করা হয়।যাতে করে গ্রাম পঞ্চায়েতের বিভিন্ন লোকেরা এই প্রশাসনিক ক্যাম্পের মাধ্যমে তাদের নিত্য প্রয়োজনীয় ব্যবহৃত কাগজপত্র গুলি প্রশাসনিক ক্যাম্পের মাধ্যমে তৈরি করতে পারে জব কার্ড,রেশন কার্ড,প্রধানমন্ত্রী আবাসিক যোজনার ঘরের কাগজপত্র জমা দেওয়া,মেরিজ কার্ড তৈরি করা সহ এই ধরনের বিভিন্ন প্রয়োজনীয় কাগজপত্র গুলি এই প্রশাসনিক শিবির থেকে করে দেওয়া হবে।এছাড়া তিনি এও বলেন এই প্রশাসনিক শিবিরের মাধ্যমে এদিন এক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে ৮৫ জন মহিলার হাতে উজ্জ্বলা যোজনার গ্যাস তুলে দেওয়া হয় ।এছাড়া এই প্রশাসনিক ক্যাম্পে বিভিন্ন দপ্তর থেকে বিভিন্ন ধরনের স্টল খোলা হয় ।এছাড়া এই প্রশাসনিক মেলায়, একটা বৃহৎ অংশের সহ সহায়ক দলের কর্মীরা তাদের নিজেদের উৎপাদিত ও তৈরি করা সামগ্রী সাজিয়ে এই মেলায় বসেন।তাই তিনি বলেন প্রধানমন্ত্রীর এই যোজনার মাধ্যমে দেশের সাধারণ জনগণের স্বার্থে বিভিন্ন প্রকল্পের মাধ্যমে জনগণের হাতে সেই প্রকল্প গুলি যাতে পৌঁছে যায় এর জন্য কেন্দ্রীয় সরকার প্রতিনিয়ত কাজ করে চলেছে দেশের মানুষকে এবং দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে।এছাড়া এই দিন অনুষ্ঠানের মাধ্যমে চারটি স্ব সহায়ক দলকে এক লক্ষ,দেড় লক্ষ,তিন লক্ষ এবং সর্বাধিক পাঁচ লক্ষ টাকার ডেমো চেক সহায়ক দলের হাতে তুলে দেন অনুষ্ঠানের অতিথিরা ।এছাড়া পাঁচ জন গর্ভবতী মায়েদের হাতে অঙ্গনওয়াড়ি কর্মীরা বিভিন্ন পুষ্টি জাতীয় খাবারের থালি তুলে দেন। অনুষ্ঠান শেষ অনুষ্ঠানের সমস্ত অতিথিরা সুশাসন মেলায় আগত বিভিন্ন স্টল গুলির ফিতা কেটে উদ্বোধন করেন এবং সেই সব স্টল গুলির বিভিন্ন জিনিস বিভিন্ন স্ব সহায়ক দল এবং বেনিফিশারি দের হাতে তুলে দেন।এবং খোয়াই পঞ্চায়েত সমিতির ভাইস চেয়ারম্যান তাপস কান্তি দাসের হাত দিয়ে মৎস্য ব্যবসায়ীদের জন্য আইস বক্স,নেট,হাঁস, মুরগির ছানা বিতরণ,এবং বিভিন্ন ক্লাবের জন্য দুটি করে ফুটবল প্রদান ও বিভিন্ন ধরনের জিনিস বিতরণ করা হয়।এছাড়া বন দপ্তরের উদ্যোগ বিভিন্ন ধরনের গাছের চারা যথাক্রমে আপেলকুল , সুপরি সহ বিভিন্ন চারা বিতরণ করা হয়। এই সুশাসন মেলা গুলিতে সাধারন জনগণ উপকৃত হচ্ছে যে এই বিষয়ে কোন সন্দেহ নেই । কারণ এই সমস্ত প্রশাসনিক মেলা গুলিতে গ্রামীণ ও পিছিয়ে পড়া জনগণ যেভাবে উপচে পড়ে প্রশাসনিক সুযোগ-সুবিধা গুলি গ্রহণ করেন এতে পরিষ্কার প্রধানমন্ত্রীর যে উদ্যোগ এবং প্রধানমন্ত্রীর কর্মসূচি গুলি বাস্তবায়ন করার ক্ষেত্রে প্রশাসনিক আমলা এবং জন প্রতিনিধিরা এই কর্মসূচি গুলি কে সফল করার জন্য দায়িত্ব নিয়ে কাজ করছেন। আর এই কর্মসূচি গুলি সফল করার মূল চাবিকাঠি হল খোয়াই পঞ্চায়েত সমিতির বাইস চেয়ারম্যান তাপস কান্তি দাসের মতো নেতৃত্বদের হাতে। অন্যথায় প্রশাসনিক কর্মসূচি সফল করা সম্ভব হতো না।তবে এটা বলা যায় এই সুশাসন মেলায় সাধারণ জনগণ অনেকটাই উপকৃত হয়েছেন বলে জানান বিভিন্ন ভোক্তারা।

RELATED ARTICLES

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

- Advertisment -spot_img

জনপ্রিয় খবর

সাম্প্রতিক মন্তব্য