Sunday, April 21, 2024
বাড়িখবরশীর্ষ সংবাদটমটম চালিয়ে বাগান বাজার থেকে কমলপুর যাওয়ার পথে ২০৮ নং জাতীয় সড়কে...

টমটম চালিয়ে বাগান বাজার থেকে কমলপুর যাওয়ার পথে ২০৮ নং জাতীয় সড়কে পথ দুর্ঘটনায় আহত তিন জিবিতে রেফার একজন।

খোয়াই প্রতিনিধি.৩০শে অক্টোবর..বাগানবাজার এলাকা থেকে এক ব্যক্তি পরিবারকে নিয়ে নিজ টমটম চালিয়ে কমলপুর যাবার পথে খোয়াই শিঙিছড়ার বড় বাঘাই এলাকাতে উনার টমটমটি দুর্ঘটনায় পড়লে টমটমের দুই যাত্রী সহ পথচারী এক মহিলা গুরুতর আহত হয়।শেষে সেই মহিলাকে জিবিতে রেফার করে দেওয়া হয়।ঘটনার বিবরণ দিয়ে কল্যাণপুর এলাকার বাসিন্দা বিশ্বজিৎ চক্রবর্তী জানান সোমবার বিকেলে উনার ব্যাটারি চালিত টমটমটিকে নিয়ে পরিবারশুদ্ধ কমলপুরের উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছিলেন এরপর খোয়াইতে আসার পর ২০৮ নং জাতীয় সড়ক ধরে কমলপুরের উদ্দেশ্যে রওনা দেবার কিছুক্ষণ পর সোমবার বিকেল চারটা নাগদ খোয়াই থানাধীন শিঙ্গিছড়ার বড় বাঘাই এলাকাতে আসামাত্র দেখতে পান একজন মহিলা নাম অনিতা দেবনাথ (৩০) বাড়ি বাচাইবাড়ী এলাকা সেই মহিলা রাস্তার ডান বাম না দেখে রীতিমতো বিশ্বজিৎ চক্রবর্তীর টমটমের সামনে দিয়ে সোজাভাবে ২০৮ নং জাতীয় সড় পার হবার চেষ্টা করছিলেন একেতো টমটমের কোন শব্দ ছিল না অন্যদিকে মহিলা ও কোন খেয়াল করিনি তা বুঝতে পারে টমটম চালক বিশ্বজিৎ চক্রবর্তী সজোরে টমটমের ব্রেক কষেন এরপরও পথচারিত মহিলা অনিতা দেবনাথ এর গায়ে টম টমটির ধাক্কা লাগে তাতে মহিলার ছিটকে পড়ে রাস্তায় এবং বিশ্বজিৎ চক্রবর্তী টমটমটি উল্টে পড়ে তাতে টমটমের নিচে বিশ্বজিৎ চক্রবর্তীর ১২ বছরের ছেলে আয়ুস চক্রবর্তী চাপা পরে অন্যদিকে টমটমের আরোহী বিশ্ব চক্রবর্তীর স্ত্রী বন্ধনা চক্রবর্তী ও টমটম চালক বিশ্ব চক্রবর্তী অল্প বিস্তার আহত হন এই ঘটনায় টমটম চালক বিশ্বজিৎ চক্রবর্তীর স্ত্রী বন্ধনা চক্রবর্তী ভয়ে চিৎকার করতে থাকেন।এই ঘটনা দেখে বড় বাঘাই এলাকার লোকজন ছুটে এসে পথচালিত মহিলা অনিতা দেবনাথ কে রাস্তা থেকে তুলে এবং দেখতে পায় মহিলার মাথা ফেটে গেছে এবং টমটম এর নিচে চাপা পড়া বিশ্বজিৎ চক্রবর্তীর ছেলে আয়ুষ চক্রবর্তী কেও টেনে বের করে তাতে আয়ুষ চক্রবর্তীর পায়ে এবং মাথায় প্রচন্ড চোট পায়।শেষে বাঘাই এলাকার লোকজন আহত সবাইকে খোয়াই জেলা হাসপাতালে নিয়ে আসে বিশ্বজিৎ চক্রবর্তী ওনার স্ত্রী বন্ধনা চক্রবর্তী ও তাদের ছেলে আয়ুষ চক্রবর্তীকে প্রাথমিক চিকিৎসার পর ছেড়ে দেওয়া হয়।অন্যদিকে গুরুতর আহত মহিলা অনিতা দেবনাথ এর মাথায় আঘাত লাগার কারণে জেলা হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক অনিতা দেবনাথ কে উন্নত চিকিৎসার জন্য জিবি হাসপাতালে রেফার করে দেওয়া হয় সিটি স্ক্যান করার জন্য ।যদিও পরে খবর পাওয়া যায় মহিলা বর্তমানে সুস্থ রয়েছে জিবি হাসপাতাল।

RELATED ARTICLES

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

- Advertisment -spot_img

জনপ্রিয় খবর

সাম্প্রতিক মন্তব্য