Tuesday, February 27, 2024
বাড়িখবরশীর্ষ সংবাদটি এস আর ষষ্ঠ ব্যাটেলিয়ান উদ্যোগে রক্তদান শিবির ও সিভিক একশন প্রোগ্রাম...

টি এস আর ষষ্ঠ ব্যাটেলিয়ান উদ্যোগে রক্তদান শিবির ও সিভিক একশন প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত হয়

খোয়াই রামচন্দ্র ঘাট স্থিত টি এস আর ষষ্ঠ ব্যাটেলিয়ানের উদ্যোগ মঙ্গলবার দুপুরে এক রক্তদান শিবির ও এক সিভিক একশন প্রোগ্রামের আয়োজন করা হয়। উক্ত রক্তদান শিবিরের উদ্বোধন করেন ব্যাটেলিয়ানের কমান্ডেন্ট জয়ন্ত চক্রবর্তী এছাড়া রক্তদান শিবিরের মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন ডেপুটি কমান্ডেন্ড ডেবিট চৌধুরী খোয়াই জেলা হাসপাতালের চিকিৎসক ডক্টর সুপ্রিয়া দেববর্মা উপস্থিত ছিলেন এসিস্ট্যান্ট কমান্ডেন্ট সুবোধ চন্দ্র দাস সহ ষষ্ঠ ব্যাটেলিয়ানের টি এস আরের জওয়ানরা। প্রথমে প্রদীপ প্রজ্জলন ও রক্তদান শিবির অনুষ্ঠানের ফিতা কেটে কমান্ডেন্ট জয়ন্ত চক্রবর্তী রক্তদান শিবিরের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন । উক্ত রক্তদান শিবিরে বক্তব্য রাখতে গিয়ে খোয়াই রামচন্দ্র ঘাটের টি এস আরের ষষ্ঠ ব্যাটেলিয়ানের কমান্ডেন্ট জয়ন্ত চক্রবর্তী বক্তব্য রাখতে গিয়ে বলেন পুলিশের দেড়শো বছর প্রতি উপলক্ষে এ রক্তদান শিবিরের আয়োজন। এছাড়া এই ষষ্ঠ ব্যাটেলিয়ান ২০১০ সাল থেকে একনাগারে রক্তদান শিবিরের আয়োজন করে চলেছে তাতে করে টি এস আর জোয়ান নিজেদের কর্তব্য এবং বিভিন্ন কর্মব্যস্ততার মধ্যেও এখন পর্যন্ত ২৩৪৮ জন জন রক্তদান করেছে। এর মধ্যে অনেকেই ৩-৪ বার এবং এক অফিসার দশবারের মতন রক্তদান করেন ২০২২ সালে দুটি রক্তদান শিবিরের মাধ্যমে ১০৬ জন রক্ত দান করেন, ২০২১ সালে এক রক্তদান শিবিরে ১০২ জন টি এস আর জোয়ানরা স্বেচ্ছায় রক্তদান করেন এবং মঙ্গলবার খোয়াই রামচন্দ্রঘাট স্থিত টি এস আরের ষষ্ঠ ব্যাটেলিয়ানের উদ্যোগে আয়োজিত রক্তদান শিবিরে ৫০ জন জোয়ান এদিন স্বেচ্ছায় রক্তদান করেন। রক্তদান শুধু খোয়াইতে নয় এই দিনে সারা রাজ্যের আটটি টি এস আর ক্যাম্পে রক্তদান শিবিরের আয়োজন করেছে। দেখা গেছে বিগত দিনের রাজ্যের বিভিন্ন ব্লাড ব্যাংক গুলিতে রক্ত সংকট চলছে তার থেকে পরিত্রাণ পাবার জন্য এই রক্তদান শিবিরের ব্যবস্থা করা হয়েছে। এই রক্তদান শিবির ছাড়াও টি এস আর জোয়ানরা বিভিন্ন সময়ে মুমূর্ষ রোগীদের রক্ত দিয়ে থাকেন শুধু তাই না আত্মীয় পরিজন সহ বিভিন্ন মুমূর্ষ রোগীদের স্বতঃস্ফূর্তভাবে টি এস আর জোয়ানরা রক্তদান করে থাকেন এমনও দেখা গেছে টি এস আর ষষ্ঠ ব্যাটেলিয়ানের জওয়ানদের দুটি শিশু থ্যালাসেমিয়া রোগে আক্রান্ত তাদেরকে প্রতিনিয়ত রক্ত প্রদান করে থাকেন ক্যাম্পের জোয়ানরা এই মহৎ কাজের জন্য কমান্ডেন জয়ন্ত চক্রবর্তী তাদেরকে সাধুবাদ জানান। এছাড়া রক্তদানের মাধ্যমে সমাজে একটি বার্তা যায় যে রক্তদান একটি মহৎ দান এতে করে একটি মুমূর্ষু রোগীকে মৃত্যুর হাত থেকে বাঁচিয়ে ফেরানো সম্ভব হয়। তাছাড়া প্রয়োজন বোধে বিভিন্ন রোগীর আত্মীয়রা জওয়ানদের সাথে যোগাযোগ করে রক্তদানের জন্য। তারা জানে জোয়ানরা সময়মতো রক্ত দিতে পারে এবং জোয়ানরাও সেই রক্তদানের জন্য স্বতঃস্ফূর্তভাবে এগিয়ে এসে অনেক মুমূর্ষ রোগীদেরকে বাঁচিয়েছেন বলে জানান কমান্ড জয়ন্ত চক্রবর্তী। রক্তদান শিবির শেষে একটি সিভি একশন প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত হয় এই অনুষ্ঠানে পূর্ব রামচন্দ্র ঘাট কলোনির নিম্ন বুনিয়াদী বিদ্যালয় ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে বই খাতা কলম ইত্যাদি তুলে দেওয়া হয় সেখানে উপস্থিত ছিলেন কমান্ডেন্ট জয়ন্ত চক্রবর্তী, ডেপুটি কমেন্ডেন্ট ডেবিট চৌধুরি, এসিস্ট্যান্ট কমান্ডেন্ট সুবোচ্চ চন্দ্র দাস এবং স্কুলের শিক্ষক মনিন্দ্র নমঃশূদ্র উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত অতিথিরা স্কুলের শিশুদের হাতে বই খাতা কলম গুলি তুলে দেন। টি এস আর ষষ্ঠ ব্যাটেলিয়ানের কমান্ডের জয়ন্ত চক্রবর্তী বলেন তাদের এই ধরনের রক্তদান শিবির আগেও চলে আসছিল আগামী দিনও চলতে থাকবে বিশেষ করে বর্তমান সময়ে রক্ত সংকটের কথা চিন্তা করে ও মুমূর্ষু রোগীদের বাঁচানোর লক্ষ্যে।

RELATED ARTICLES

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

- Advertisment -spot_img

জনপ্রিয় খবর

সাম্প্রতিক মন্তব্য