Friday, June 14, 2024
বাড়িখবররাজ্যনববর্ষের দিনে হালখাতা নিয়ে লক্ষ্মীনারায়ণ বাড়িতে ভিড় ব্যবসায়ীদের

নববর্ষের দিনে হালখাতা নিয়ে লক্ষ্মীনারায়ণ বাড়িতে ভিড় ব্যবসায়ীদের

আধুনিকতার ছোঁয়ায় হারিয়ে যেতে বসলেও বাংলা নতুন বছরের প্রথম দিন এখনও ব্যবসায়ীরা হাল খাতার যাত্রা করে থাকেন। এদিনে বিভিন্ন মন্দিরে মন্দিরে এসে হাল খাতার পূজা দেন তারা। এবছরও এর ব্যতিক্রম ঘটেনি। রবিবার সকাল থেকে রাজধানীর লক্ষ্মি নারায়ণ বাড়িতে ভিড় জমান পুরুষদের পাশাপাশি মহিলা ব্যবসায়ীরা। ব্যবসার শ্রীবৃদ্ধি ও পরিবারের মঙ্গল কামনায় তারা হাল খাতার যাত্রা করানোর পাশাপাশি পূজা দেন। প্রচুর ব্যবসায়ী এদিন ভিড় জমান। দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে তারা যাত্রা করান হাল খাতার। লক্ষ্মি নারায়ণ বাড়ি চত্বরে প্রতি বছরের মতো এবছরও বসেছে মেলা। দোকানীরা রকমারি পসরা নিয়ে মেলায় বসেছেন।হালখাতা হলো বছরের প্রথম দিনে দোকানপাটের হিসাব আনুষ্ঠানিকভাবে হালনাগাদ করার প্রক্রিয়া। বছরের প্রথম দিনে ব্যবসায়ীরা তাদের দেনা-পাওনার হিসাব সমন্বয় করে এদিন হিসাবের নতুন খাতা খোলেন। এই উপলক্ষে নববর্ষের দিন ব্যবসায়ীরা তাদের খদ্দেরদের মিষ্টিমুখ করান। খদ্দেররাও তাদের সামর্থ্য অনুযায়ী পুরোনো দেনা শোধ করে দেন। আগেকার দিনে ব্যবসায়ীরা একটি মাত্র মোটা খাতায় তাদের যাবতীয় হিসাব লিখে রাখতেন। এই খাতাটি বৈশাখের প্রথম দিনে নতুন করে হালনাগাদ করা হতো। বাংলাদেশ , ভারতের ত্রিপুরা ও পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় ছোট বড় মাঝারি যেকোনো দোকানেই এটি পালন করা হয়ে থাকে। আগেকার দিনে হালখাতা অনেক ধূমধাম করে উদযাপন করা হত। এখনকার দিনে অবশ্য হালখাতা ঘিরে ধূমধাম অনেকটাই কমে এসেছে। আগে অনেক দোকানদার রীতিমত নিমন্ত্রণ পত্র ছাপিয়ে হালখাতার উত্সাবের আয়োজন করতেন। লোকজন নেমন্তন্ন করে এলাহি আয়োজন করে তাঁদের খাওয়ানো হত। এখনকার দিনে বিভিন্ন অ্যাপ ও অনলাইন শপিং-এর কারণে হালখাতার সেই প্রাচীন দিনের জৌলুস কমে এসেছে। তবে অনেকেই এখনও পুরনো ঐতিহ্য- সংস্কৃতি ধরে রাখার চেষ্টা করছেন।

RELATED ARTICLES

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

- Advertisment -spot_img

জনপ্রিয় খবর

সাম্প্রতিক মন্তব্য