Tuesday, February 27, 2024
বাড়িখবরশীর্ষ সংবাদখোয়াই সরকারি দ্বাদশ শ্রেণী বিদ্যালয় উদ্যোগে পুরাতন টাউন হলে অনুষ্ঠিত হলো শিক্ষক...

খোয়াই সরকারি দ্বাদশ শ্রেণী বিদ্যালয় উদ্যোগে পুরাতন টাউন হলে অনুষ্ঠিত হলো শিক্ষক অভিভাবক সম্মেলন।

খোয়াই প্রতিনিধি ১৪ই সেপ্টেম্বর…কথায় বলে শিক্ষক সমাজের মেরুদন্ড সত্যি কথাটা তাৎপর্য রয়েছে।আজ যদি শিক্ষকরা না থাকতো তাহলে সমাজের যে কি অবস্থা হতো তা বলার অপেক্ষা রাখেনা তাইতো শিক্ষকরা সমাজের নমস্য ব্যক্তি।তাইতো তাদেরকে কেন্দ্র করে বৃহস্পতিবার দুপুরে খোয়াই পুরাতন টাউন হলে সরকারি দ্বাদশ শ্রেণী বিদ্যালয়ের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হলো শিক্ষক অভিভাবক সম্মেলন।সম্মেলনের উদ্বোধন করেন খোয়াই জিলা পরিষদের সদস্য সুব্রত মজুমদার।এছাড়া অনুষ্ঠান মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন স্কুলের প্রধান শিক্ষক দীনেশ দেববর্মা ,সহকারী প্রধান শিক্ষক পার্থ দেব,পুর পরিষদের চেয়ারম্যান দেবাশীষ নাথ শর্মা,কাউন্সিলর তথা পৌর পরিষদের এডুকেশন এন্ড স্যানিটেশন স্ট্যান্ডিং কমিটির সভাপতি মৃত্যুঞ্জয় নাথ শর্মা, জাম্বুরা গাও সভার প্রধান সুশান্ত দেবনাথ ও খোয়াই মহকুমা শাসক বিজয় সিনহা সহ অন্যান্যরা। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন স্কুলের শিক্ষক-শিক্ষিকা ও সমস্ত ছাত্রছাত্রী এবং অভিভাবকরা। অনুষ্ঠানের শুরুতে এই স্কুলের বিদ্যা জ্যোতি প্রকল্পের অন্তর্গত ছোট কচি কাচারা উদ্বোধনী সংগীতের মাধ্যমে অনুষ্ঠানটি শুরু করে ।এরপর স্কুলের সহকারি প্রধান শিক্ষক পার্থ দেব স্কুলের বার্ষিক প্রতিবেদন পেশ করার পাশাপাশি এও বলেন যে স্কুলটিকে টেকনো কলেজ অফ ইন্ডিয়া আগরতলা শাখার পক্ষ থেকে শ্রেষ্ঠ শিক্ষা সম্মান প্রদান করা হয় এবং এর পাশাপাশি সারা রাজ্যের মধ্যে বেস্ট আই টি পুরস্কার পায় এই সরকারি দ্বাদশ শ্রেণী বিদ্যালয়টি।শেষে বক্তব্য রাখতে গিয়ে জিলা পরিষদের সদস্য সুব্রত মজুমদার এই ধরনের অনুষ্ঠান করার জন্য স্কুল কর্তৃপক্ষকে সাধুবাদ জানান।পাশাপাশি কিভাবে স্কুলের শিক্ষার মান উন্নত করা যায় সেই বিষয়ে আলোচনা করেন।এবং বলেন এই স্কুলের সম্মান দীর্ঘকাল ধরে চলে আসছে কারণ এই স্কুল থেকে অনেক ছাত্র-ছাত্রী পঠন-পাটন শেষ করে বর্তমানে দেশ এবং রাজ্যের বিভিন্ন উচ্চ পদে আসিন হয়ে দেশের জন্য কাজ করছে।তাছাড়া শিক্ষক এবং ছাত্রদের মধ্যে একটি সুসম্পর্ক বজায় থাকার কারণে ছাত্ররা ভবিষ্যতে নিজেদের মান সমাজের উচ্চস্তরে নিয়ে যেতে পারে। তাইতো শিক্ষকের অবদান অপরিসীম ।তাই আজও অনেক শিক্ষকে রাস্তায় দেখলে ছাত্র ছাত্রীরা পা ছুঁয়ে প্রণাম করে যেটা আমাদের শিক্ষা ও ভারতের সংস্কৃতির একটি অঙ্গ যা আর অন্য কোথাও দেখা যায় না ।তাই স্কুলে শিক্ষকদের কথা শুনে ছাত্রছাত্রীরা যাতে ভালো করে লেখাপড়া করে সেদিকে নজর দিতে অনুরোধ রাখেন।পাশা পাশি বর্তমান সময় চলছে চারিদিকে নেশার বাণিজ্য ।সেই নেশা কারবারিরা বিশেষ করে স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীদের টার্গেট করে নতুন নতুন পথ অবলম্বন করে বিভিন্ন স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীদেরকে নেশায় আসক্ত করার জন্য বিভিন্ন পদ অবলম্বন করে।তাই সেই সব দিক দিয়ে ছাত্রছাত্রী এবং অভিভাবক দেরকে এই বিষয়ে সজাগ থাকার জন্য অনুরোধ রাখেন জিলা পরিষদের সদস্য সুব্রত মজুমদার। আজকের এই সম্মেলনে অতীতের মধ্যে পৌর পরিষদের চেয়ারম্যান আলোচনা রাখতে গিয়ে বলেন রাজ্যে তথা খোয়াইয়ের শিক্ষার উন্নতির জন্য কেন্দ্রীয় সরকার বিদ্যা জ্যোতি প্রকল্পের মাধ্যমে ছাত্র-ছাত্রীদের শিক্ষার পাশাপাশি অন্যান্য গুণাবলী শ্রী বৃদ্ধি করার ক্ষেত্রে প্রতিটি বিদ্যা জ্যোতি স্কুলে নাচ গান অঙ্কন এই সমস্ত বিষয়ের শিক্ষক নিয়োগ করা হয়েছে। আজকের অনুষ্ঠান সম্পূর্ণ্ণ জমজমাট ছিল যদিও একটা বিষয় পরিলক্ষিত হয় ছাত্র-ছাত্রীদের পক্ষে কোন অভিভাবককে আলোচনাা করতে লক্ষ্য করা যায়নি।

RELATED ARTICLES

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

- Advertisment -spot_img

জনপ্রিয় খবর

সাম্প্রতিক মন্তব্য